মঙ্গলবার, ২১ মে ২০২৪, ০৩:২৪ পূর্বাহ্ন
শিরোনামঃ
৪৪ তম স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে বঙ্গমাতা সাংস্কৃতিক জোটের আলোচনা সভা ঢাকায় ব্যাটারিচালিত রিকশা চলবে, প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশ কঠোরভাবে বাজার মনিটরিংয়ের নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর ভালুকা উপজেলায় ভাইস চেয়ারম্যান পদে টিয়া প্রতীক পেলেন হোসাইন মোঃ রাজিব ইরানের প্রেসিডেন্টের মৃত্যুতে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শোক তাপদাহে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের জন্য নতুন নির্দেশনা মাউশির মাছ শিকারে নিষেধাজ্ঞা, তীরে ফিরছেন জেলেরা হেলিকপ্টার দুর্ঘটনায় ইরানের প্রেসিডেন্ট ও পররাষ্ট্রমন্ত্রী নিহত পাইকগাছা উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে মোটরসাইকেল প্রতীকের চেয়ারম্যান প্রার্থী শেখ কামরুল হাসান টিপুর গণসংযোগ এমটিসি মডেল স্কুলের শতভাগ শিক্ষার্থী কৃতকার্য হওয়ায় সম্মাননা প্রদান
নোটিশঃ
বিডি ২৪ ক্রাইম সাথে থাকুন। আপডেট খবর পড়ুন

প্রধান মন্ত্রীর ছবি ভাংচুরের প্রতিবাদে আদিতমারী উপজেলা আওয়ামীলীগের সংবাদ সম্মেলন

রির্পোটারের নাম / ২০৮ বার প্রিন্ট / ই-পেপার প্রিন্ট / ই-পেপার
আপডেট সময় :: রবিবার, ২৭ নভেম্বর, ২০২২, ১২:৪১ অপরাহ্ণ

এস,আর শরিফুল ইসলাম রতন, লালমনিরহাট

জেলার আদিতমারী উপজেলা আওয়ামী লীগের কার্যালয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও বীরমুক্তিযোদ্ধা শামসুল ইসলাম সুরুজের ছবি ভাঙচুর করার ঘটনায় আদিতমারী উপজেলা আওয়ামী লীগের তৃণমূলেের নেতা কর্মীরা তীব্র নিন্দা জানিয়ে আজ রবিবার বিকাল সাড়ে ৪ টায় দলীয় কার্যালয়ে সাংবাদিক সম্মেলন করে।

গতকাল শনিবার জেলার আদিতমারী উপজেলার আওয়ামী লীগের তৃণমূল নেতা কর্মীরা আওয়ামী লীগের আলোচনা সভা ও সমাবেশ ছিল। এ সময় বিএনপির জামাতে সশস্ত্র ক্যাডারদের সাথে নিয়ে সাবেক বিএনপির সভাপতি মোহাম্মদ আলী ও প্রয়াত বিএনপি নেতার পুত্র রফিকুল ইসলাম দলীয় কার্যালয় হামলা ও ভাংচুর করে। এসময় দলীয় কার্যালয়ে রক্ষিত প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও ২০০৩ সালে ২২ ডিসেম্বর বিএনপি জামাতের নির্মম পৈশাচিক বর্বর হত্যাকাণ্ডের শিকার বীরমুক্তিযোদ্ধা শামসুল ইসলাম সুরুজের( জেলা আ’লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক) ছবি ভাঙচুর করা হয়। এ সময় সশস্ত্র সন্ত্রাসীরা আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীদের দেখে নেওয়ার হুমকি দেয়। সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য রাখেন আদিতমারী উপজেলা আওয়ামী লীগের তৃণমূল নেতা-কর্মীদের ঘোষিত কমিটির সাধারণ সম্পাদক কমলাবাড়ী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মাহমুদ ওমর চিশতি। এসময় উপজেলা আওয়ামীলীগের (একাংশের) সভাপতি ভাদাই ইউনিয়নের চেয়ারম্যান কৃষ্ণ কান্ত রায় বিদু বলেন, সমাজকল্যাণ মন্ত্রী, মন্ত্রী পুত্র, মন্ত্রীর এপিএস গত ১৯ নভেম্বর নীলফামারীর অবসরে গিয়ে আদিতমারী উপজেলা আওয়ামী লীগের কমিটি ঘোষনা করেছে। সে কমিটিতে সভাপতি বিএনপি নেতা, তিন জন সহ সভাপতি বিএনপি নেতা, সাধারণ সম্পাদক বিএনপি নেতার পুত্র, সাধারণ সম্পাদকের গাড়ি চালক কমিটিতে সদস্য, মন্ত্রীর এপিএস মিজান সাংগঠনিক সম্পাদক। অথচ আমরা দুই ইউপি চেয়ারম্যান নৌকা প্রতীক নিয়ে বিজয়ী হয়ে উপজেলা আওয়ামী লীগের কমিটিতে সদস্য হতে পারলাম না। যার ফলে তৃণমূল নেতা কর্মীরা ত্যাগী ও প্রকৃত কর্মীদের নিয়ে পৃথক কমিটি ঘোষনা দিয়েছে। তিনি মন্ত্রী, এমপি, মন্ত্রী পুত্র ও এপিএসের লাগাম টেনে ধরে তদন্তপূর্বক কমিটি ঘোষনায় মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হস্তক্ষেপ কামনা করেন।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার মতামত লিখুন
Theme Created By ThemesDealer.Com